অনলাইন ডেস্কঃ
কেমন যেন সবকিছু এলোমেলো হয়ে গেছে। হঠাৎ ভাঙা সুখের সংসার। বিশ্বকাপে প্রত্যাশা পূরণ হয়নি। কোচ স্টিভ রোডস ব্যর্থতার কারণে চাকরি হারিয়েছেন। ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা সফরে আর একটি ধাক্কা। আসলে বাংলাদেশের ক্রিকেট গ্রহে নেমে পড়েছিল। জাতীয় দলের মতো 'এ' দলটিও বেজে উঠেছে রিংয়ে। সাফল্য হাইপার-পারফরম্যান্স ইউনিটের মতো ক্রিকেটের অন্যান্য শাখা থেকে আসেনি। বিপিএল এবং সিনিয়র ক্রিকেটারদের মধ্যে উত্তেজনার খবর । কয়েক মাস ধরেই বাংলাদেশের ক্রিকেট অতিক্রম করছে অস্থির এক সময়।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আজ শুরু হওয়া একমাত্র পরীক্ষাটি সেই অশান্ত সময়ের বোতলবন্দী করা। অন্তত সাকিব আল হাসান এবং তার দল বিশ্বাস করে এই টেস্ট নিয়ে বাংলাদেশ আবারও ফিরবে। দলে নতুন কোচ এসেছেন। ড্রেসিংরুমের বাতাস কিছুটা বদলেছে। নিজেদের গুছিয়ে নিতে প্রয়োজন একটি জয়।

সাকিব আল হাসানও সেটি খুব ভালো বুঝতে পারছেন। কাল টেস্ট–পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক বলছিলেন, ‘যদি এই ম্যাচ ভালোভাবে জিততে পারি, অনেক কিছুই আবার স্বাভাবিক হতে শুরু করবে। তবে জয়টাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ভালোভাবে আর খারাপভাবে; ১ রানে জিতলেও সেটি জয়, ১০০ রানে জিতলেও। ১ উইকেট হোক বা ১০ উইকেট, জয় জয়ই। জেতাটাই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ।’

ঘরের মাঠে টেস্ট, উইকেট কথা বলবে স্পিনারদের হয়ে। অধিনায়ক সাকিবও স্পিন–সহায়ক উইকেটেই নিজের সেরা অধিনায়কত্বটা করেন। পছন্দের কন্ডিশন, পছন্দের একাদশ, সবকিছুই সাকিবের পক্ষে। তবে অতি স্পিন–নির্ভরতা আবার তুলে ধরে বাংলাদেশ দলের পেস দুর্বলতাটাকে। শুনতে হয় সমালোচনা। তবে এ ক্ষেত্রে সাকিবের দর্শন সব সময়ই ভিন্ন, ‘ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া চার পেসার খেলায়, তখন তো সমালোচনা হয় না। যারাই খেলবে, আমাদের চেষ্টা থাকবে ২০ উইকেট নেওয়ার। আমাদের স্পিনাররা যখনই উইকেটের সাহায্য পেয়েছে, তখনই ভালো করেছে।’

সাকিবের পর্যবেক্ষণ, চট্টগ্রাম টেস্টে পার্থক্য গড়ে দিতে পারে দুই দলের ব্যাটিং সামর্থ্যই। নিজের ব্যাটসম্যানদের ওপর পূর্ণ আস্থা রাখার ঘোষণাও কাল তিনি দিয়েছেন সংবাদ সম্মেলনে।

 অধিনায়ক রশিদ খানের দাবি, ‘প্রথম টেস্টের চেয়ে দ্বিতীয় টেস্টে আমরা ৭০-৮০ ভাগ ভালো পারফরম্যান্স করেছি। যতই খেলব, ততই শিখব ও উন্নতি করব।’উন্নতির সিঁড়িতে আরেকটা ধাপ এগোতে সাকিবের মতো জয়ে চোখ রশিদ খানেরও। আফগানিস্তানকে টেস্ট জাতি হিসেবে গড়ে তোলার চ্যালেঞ্জ যে হাতে নিয়েছেন তিনি!

Post a Comment

Previous Post Next Post