আপনারা কি জানেন নিউজ ওয়েবসাইট বানানোর তিনটি বেনিফিট রয়েছে , প্রথমটা হলো টাকা, দ্বিতীয় টা হল টাকা এবং তৃতীয় টা হল টাকা। তো আজকে আমি আপনাদের জানাব নিউজ ওয়েবসাইট বানানোর কিছু লাভ এবং লোকসান। যদি আপনি একটি নিউজ ওয়েবসাইট বানাতে চান তাহলে আপনার তাতে কি কি লাভ হতে পারে আর কি কি লোকসান হতে পারে আমাদের এই পোস্টে আজকে আমরা সেটাই জানবো।

যদি আপনি একটি নিউজ ওয়েবসাইট বানাতে চান তাহলে আপনি এই পোস্টটি পড়তে পারেন যদি বানাতে নাও চান তারপরেও আপনি এই পোস্টটি পড়তে পারেন কারণ এই পোস্টটিতে নিউজ ওয়েবসাইট এর সম্পর্কে অনেক ইনফরমেশন দেয়া হয়েছে।

বন্ধুরা সর্বপ্রথম আমরা শুরু করি নিউজ ওয়েবসাইট বানানোর লাভ কি কি এই বিষয় সম্পর্কে তারপর আমরা জানবো নিউজ ওয়েবসাইট বানানোর কি কি লোকসান রয়েছে।

নিউজ ওয়েবসাইট বানানোর লাভ

1. ইনস্ট্যান্ট ট্রাফিক :

যদি আপনি এক নিউজ ওয়েবসাইট বানান, তাহলে আপনি আপনার নিউজ ওয়েবসাইটে ইনস্ট্যান্ট ট্রাফিক পাবেন নাকি অন্য কোন নিস ওয়েবসাইটের মত আপনাকে ট্রাফিকের জন্য আহামরি করে বেড়াতে হবে। যদিও আপনি এক নতুন নিউজ ওয়েবসাইট বানিয়েছেন সেজন্য আপনাকে কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে কিন্তু যখন আপনার ওয়েবসাইট একটু পুরানো হবে, আপনার ওয়েবসাইটের জন্য কিছু ব্যাকলিংক বানিয়ে নিবেন আপনার ওয়েবসাইট তখন গুগলে জলদি ইন্ডেক্সি হওয়া শুরু করবে যার ফলে আপনি আপনার ওয়েবসাইটে ইনস্ট্যান্ট ট্রাফিক পাবেন। সম্ভবত আপনারা জানেন অথবা দেখেও থাকবেন কোন নিউজ ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পাবলিশ করার 2-3 মিনিটের মধ্যে তা গুগলে ইনডেক্স হয়ে যায়। যদিও ইনডেক্সের বিষয়টা আপনার নিউ ওয়েবসাইটের জন্য প্রযোজ্য হবে না যখন আপনার ওয়েবসাইট একটু পুরনো হয়ে যাবে তখন আপনি এই জাদুর কাঠি টা পাবেন। আর যদি আপনার ওয়েবসাইট একটু অথরিটি গেইন করে নেয় তাহলে আপনি গুগল নিউজ, ইয়াহু নিউজ, ইউ সি নিউজ এর জন্য এপ্লাই করতে পারেন যদি তারা একসেপ্ট করে সেখান থেকে আপনি প্রচুর পরিমাণে ট্রাফিক পাবেন সুতরাং নিউজ ওয়েব সাইটের ট্রাফিক নিয়ে চিন্তা করতে হবে না।

2. আর্টিকেল র‍্যাংকিং :

আপনারা জেনে থাকবেন যে নিউজ ওয়েবসাইটের আর্টিকেল কত জলদি র‍্যাংক করে। আপনার যদি কোন ব্লগ থেকে থাকে তাহলে আপনি আপনার ব্লগ আর নিউজ ওয়েবসাইট এর তুলনা করে দেখতে পারেন। আর যদি তুলনা করে দেখেন তাহলে দেখবেন নিউজ ওয়েবসাইট, ব্লগ ওয়েবসাইটের আর্টিকেল এর থেকে কত জলদি র‍্যাংক করে।
আপনি অবশ্যই দেখে থাকবেন যেগুলো নিউজ ওয়েবসাইট হয়, সেগুলোর আর্টিকেল গুগলে টপ স্টোরিস হিসেবে সার্চে আসে। তো এতে করে আপনার আর্টিকেলের ইনস্ট্যান্ট রেজাল্ট আসবে, আপনার আর্টিকেল জলদি র‍্যাংক করবে,আলাদা আলাদা কিওয়ার্ড এর উপর র‍্যাংক করবে। তো এইসব বেনিফিট হয় যদি আপনি একটি নিউজ ওয়েবসাইট বানান।

3. বড় কোনো আর্টিকেল লেখারদরকার নেই:

আপনাকে এখানে কোনো বড় বড় আর্টিকেল লেখার কোন দরকার নেই। যেমনটা আমাদের কোন ব্লগ পোষ্টের জন্য 2000/3000 ওয়ার্ড এর আর্টিকেল লেখা দরকার হয়। কিন্তু আপনি যদি একটি নিউজ ওয়েবসাইট বানান এবং তার জন্য কোন আর্টিকেল লিখতে চান তাহলে আপনাকে 400/500 ওয়ার্ড এর কোন আর্টিকেল লিখলেই হলো আর আপনার আর্টিকেল র‍্যাংক করা শুরু হয়ে যাবে। কারণ কোন নিউজ সাধারণত বেশি সময় এর জন্য হয় না। উদাহরণস্বরূপ যখন আমি এই পোস্টটি লিখতেছি তখন একটি নিউজ ছিল,”একটি প্লেন ক্রাশ করেছিল” আর এই নিউজটি এক থেকে দুই অথবা তিন দিন আলোচনায় থাকবে আর তখনই লোক এই বিষয়ে সার্চ করব। এই আর্টিকেল আপনি কোন নিউজ ওয়েবসাইট থেকে কপি করে সেগুলো একটু করে সাজিয়ে পুনরায় লিখতে পারেন। আর এখানে কোনো কপিরাইটের ইস্যু তেমনটা হয় না কারণ কোন নিউজ সবসময়ই সবার জন্য একই হয়ে থাকে।

4. এডসেন্স থেকে বেশি পরিমাণ ইনকাম:

আপনার ওয়েবসাইটে ইনস্ট্যান্ট ট্রাফিক আসবে, আর যখন ট্রাফিক আসবে তখন অবশ্যই আপনার অ্যাডস এ ক্লিক হবে। যার ফলে আপনি বেশি পরিমাণ এডসেন্স থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

5. রিসেশন প্রুফ :

আপনি অবশ্যই দেখে থাকবেন যে যদিও সকল কাজকর্ম থেমে থাকে, আপনার জব চলে যায় তারপর ও লোকজন ঘরে বসে টিভিতে নিউজ দেখে, ইন্টারনেটে সার্চ করে নিউজ পড়ে । কারণ নিউজ এমনই একটা জিনিস যেটা না জানলেই নয়, যেমন ধরেন আপনি যে ঘরে বসে আছেন কেনইবা বসে আছেন, কারণ লকডাউন চলছে সুতরাং আপনি অবশ্যই লক ডাউনের খবর শুনতে চাইবেন। নিউজ আমাদের নিত্য প্রয়োজনীয় একটা জিনিস যেটা আমাদের জানতেই হবে। একজন সচেতন নাগরিক অবশ্যই প্রতিদিন নিউজ পড়ে থাকে সুতরাং আপনার ওয়েবসাইটে রিসেশন প্রুফ হতে থাকবে।

6. বেশি এডভারটাইজিং এর সুবিধা:

আপনার সাইটে যেহেতু প্রচুর পরিমাণে ট্রাফিক আসে সেহেতু বিভিন্ন ধরনের কোম্পানি চাইবে তাদের পণ্য অথবা বিজ্ঞাপন আপনার ওয়েবসাইটে দেখানো হোক। যার জন্য তারা তাদের আপনার ওয়েবসাইটের সাথে এডভার্টাইজিং করতে চাইবে।ফলে আপনার ওয়েবসাইটে এডভার্টাইজিং সুবিধা বেড়ে যাবে।

7. আর্টিকেল লেখার জন্য কোন টপিক এর প্রয়োজন নেই:

যদি আপনি একজন ব্লগার অথবা ইউটিউবার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার সবচেয়ে বড় প্রবলেম টি হবে আপনাকে নির্দিষ্ট কোন টপিকের উপর ভিডিও বানাতে হবে। আর আপনাকে এই টপিক খুঁজতে অনেক সময় লাগবে। আর সেই টপিকটি খুঁজে পেলেও আপনি যে সেই টপিকের উপর অভিজ্ঞ সেটা কিন্তু নাও হতে পারে যার ফলে আপনাকে টপিকের উপর কোন আর্টিকেল অথবা ভিডিও বানাতে হলে অনেক সময় লাগবে অথবা আপনি সেটা করতেই পারবেন না। কিন্তু যদি আপনি একটি নিউজ ওয়েবসাইট বানান তাহলে আপনাকে আর্টিকেল লেখার জন্য এদিক ওদিক ঘুরে বেড়াতে হবে না আপনি যেকোন নিউজ ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করে সেটাকে একটু রিরাইট করে পাবলিশ করে দিলেই হবে। কারণ আপনারা জানেন একটি নিউজ সব সময় সবার জন্য একই হয়ে থাকে এজন্য নিউজ ওয়েবসাইট এর উপর কপিরাইট এর বেশি সমস্যা হয় না।

8. সহজে ব্যাকলিংক পাওয়া যায়:

নিউজ ওয়েবসাইট বানানোর আরেকটি সুবিধা হল আপনি এখানে সহজে ব্যাক লিঙ্ক পেয়ে যাবেন। উদাহরণস্বরূপ ধরুন আপনি কোন নিউজ সর্বপ্রথম কাভার করেছেন তাহলে আপনার এই নিউজটি যে কেউ শেয়ার করবে অথবা কোন নিউজ ওয়েবসাইট তাদের আর্টিকেলের ভিতরে ক্রেডিট হিসেবে আপনার ওয়েবসাইটের লিংক দিয়ে দেবে। যার ফলে আপনি এখান থেকে সহজেই প্রচুর পরিমাণে ব্যাকলিংক পেয়ে যাবেন।

তো উপরের আমরা নিউজ ওয়েবসাইট বানানোর কিছু উপকারিতা জানালাম। এখন সময় হয়েছে নিউজ ওয়েবসাইট বানানোর কিছু অপকারিতা জেনে নেবার । তো চলুন জেনে নেই


নিউজ ওয়েভসাইট বানানোর লোকসান :

1. আপনার আর্টিকেল চিরজীবিত থাকবে না:

আপনি জেনে থাকবেন খবরের কাগজ প্রতিদিনের টা প্রতিদিন এর জন্য হয়ে থাকে। তেমনি করে কোন নিউজ ওয়েবসাইটের কোন নিউজ প্রতিদিনের টা প্রতিদিন এর হয়ে থাকবে, অথবা 48 অথবা 72 ঘন্টা এর ভিতরে হয়ে থাকে এর থেকে বেশি হলে সেটা বাসি হয়ে যায় এবং সেই নিউজটার কোনো মূল্য থাকে না এবং সে নিউজটা কেউ আর পড়তে চায় না।

2. নিয়মিত আর্টিকেল পাবলিশ করতে হয়:

আপনাকে নিয়মিত রুপে আপনার ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পাবলিশ করতেই হবে। আপনাকে সুপার কনসিসটেন্স থাকতে হবে। আপনি যদি দিনে পাঁচটা আর্টিকেল পাবলিশ করছেন তো আপনাকে নিয়মিত রুপে পাঁচটা় আর্টিকেল পাবলিশ করতেই হবে অথবা কমপক্ষে দুই তিনটা আর্টিকেল তো পাবলিশ করতেই হবে। এটা একটু সমস্যা হয়ে যায় নিউজ ওয়েবসাইটের জন্য। যদি আপনি কোন ব্লগ চালাচ্ছেন, তাহলে আপনি সেখানে মাসে চার পাঁচটা আর্টিকেল পাবলিশ করলেই আপনি চিল করে থাকতে পারবেন। কিন্তু যদি আপনি একটি নিউজ ওয়েবসাইট চালাচ্ছেন, তখন আপনাকে নিয়মিত রুপে প্রতিদিনের নিউজ কাভার করে আপনার নিউজ ওয়েবসাইটের সেই আর্টিকেলটা পাবলিশ করতেই হবে। আর আপনি যদি এটা না করেন তাহলে আপনি এই মার্কেট থেকেই বেরিয়ে যাবেন আপনার নিউজ ওয়েবসাইট এর কোন ভ্যালু থাকবে না। তো এটা সবচেয়ে বড় প্রবলেম নিউজ ওয়েবসাইট বানানোর ক্ষেত্রে।

3. আপনার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা হতে পারে:

আপনি যদি কোন ফেক নিউজ প্রকাশ করেন অথবা কোন ব্রান্ড অথবা পণ্যের উপর না জেনে কোন উল্টোপাল্টা নিউজ করে থাকেন, তাহলে অবশ্যই আপনার উপর আইনি ব্যবস্থা করা হতে পারে। আর আপনি যেন কোন নিউজ ওয়েবসাইট থেকে তাদের আর্টিকেল পুরোপুরি কপি করে আপনার ওয়েবসাইটে বসিয়ে দেন তাহলে আপনার বিরুদ্ধে কপিরাইট আইনে আইনানুগতী ব্যবস্থা হতে পারে। সে ক্ষেত্রে আপনারা যে ওয়েবসাইট থেকে আপনারা নিউজ টি কপি করেছেন সেই ওয়েবসাইট এর ক্রেডিট দিতে পারেন। অথবা আপনারা আপনাদের আর্টিকেলে একটু পূণরায় রিরাইট করে লিখে নেবেন। নিউজ ওয়েভসাইট বানানোর জন্য এটাও আরেকটি বড় সমস্যা।

4. আপনার আরো দুই-একজন স্ট্যাফ লাগবে:

একটা নিউজ ওয়েবসাইট কখনো একার দ্বারা পরিচালনা করা সম্ভব হয় না। কারণ একটা নিউজ ওয়েবসাইট এর জন্য অনেক কিছু করতে হতে হয় যেমন প্রথমে আর্টিকেল রিসার্চ করলেন যে কোন ধরনের আর্টিকেল আপনি লিখবেন, তারপর আর্টিকেল লিখলেন, এগুলো এসইও করলেন, তারপর সেগুলো সোশ্যাল মিডিয়ায় পাবলিশ করলেন, এ ধরনের আরো অনেক অনেক কাজ হয়ে থাকে। সেই জন্য আপনাকে একের অধিক স্টাফ লাগতে পারে এই কাজগুলো সামলানোর জন্য। যদিও কোন ব্লগ একা একা চালানো যেতে পারে কিন্তু একটা নিউজ ওয়েবসাইট একা একা চালানো সম্ভব হয় না। এটিও একটি বড় প্রবলেম নিউজ সাইট বানানোর ক্ষেত্রে।

5: বড় বড় ওয়েবসাইটের সাথে কম্পিটিশন :

আপনি দেখে থাকবেন প্রথম আলো ,bdnews24 এগুলো কতটা অথরিটি বেজড ওয়েবসাইট। যদি এরা কোন নিউজ সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে থাকে তখন এই নিউজটা কে চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করেন এবং তারা যদি কোন নিউজ সোশ্যাল মিডিয়ায় পাবলিশ করে তখন লোকজন হুড়মুড় করে সেই নিউজ টা পড়তে চলে যাই। কিন্তু আপনার ওয়েবসাইট প্রথমত যেহেতু নতুন থাকবে সে ক্ষেত্রে লোকজন আপনার ওয়েবসাইটে নাও যেতে পারে। আর আপনি যদি গুগল থেকে ভিজিটর পেতে চান তখন আপনাকে অনেক বড় বড় ওয়েবসাইটের সাথে টক্কর দিতে হবে কিন্তু সে ক্ষেত্রে আপনার ওয়েবসাইট প্রথম দুই তিন পেজে শো নাও করতে পারে তাই গুগল থেকে আপনার ভিজিটর পাওয়ার সম্ভাবনা প্রথম প্রথম অনেক কম থাকবে। হ্যাঁ আপনি যদি কোন নিউজ সর্বপ্রথম প্রকাশ করে থাকেন তাহলে আপনি অবশ্যই গুগলের র‍্যাংক করবেন অথবা যখন আপনার ওয়েবসাইট একটু অথরিটি অর্জন করবে তখন আপনার ওয়েবসাইটও গুগলের র‍্যাংক করবে।

6: সোশ্যাল মিডিয়াতে অ্যাক্টিভ থাকতে হবে :

যেকোনো নিউজ সাইট এর সবচেয়ে বেশি ভিজিটর আসে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে। সেক্ষেত্রে আপনাকে যত ধরনের সোশ্যাল মিডিয়া আছে সবগুলোতে একাউন্ট থাকতে হবে। আর কোন আর্টিকেল ওয়েবসাইটে পাবলিশ করার সাথে সাথে আপনাকে সেই আর্টিকেলগুলো সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে হবে। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে যেহেতু আপনার বেশী ট্রাফিক আসে সেহেতু সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনাকে বেশী সময় একটিভ থাকতে হবে, এবং ইউজারদের কমেন্ট এর রিপ্লাই করে তাদের উৎসাহিত করতে হবে। এভাবে আপনার ওয়েবসাইটের অথরিটি বাড়াতে হবে।

7. কোয়ালিটি সম্পন্ন হোস্টিং এর ব্যবহার করতে হবে:

আপনারা জানেন যে নিউজ ওয়েবসাইটে হুড়মুড় করে ট্রাফিক চলে আসে। এবং একসাথে অনেক ট্রাফিক আসার কারণে আপনার নিউজ ওয়েবসাইট এর সার্ভার ডাউন হয়ে যেতে পারে। এজন্য আপনার নিউজ এর সাইটের জন্য একটি কোয়ালিটি সম্পন্ন হোস্টিং এ ব্যবস্থা করতে হবে।
সেজন্য আপনাকে কিছু টাকা খরচ করে ভালো একটি হোস্টিং ক্রয় করতে হবে।

তো এতক্ষণ ধরে আমরা একটি নিউজ ওয়েবসাইট বানানোর ক্ষেত্রে কি কি উপকারিতা এবং অপকারিতা হতে পারে সে সম্পর্কে আমরা জানলাম। আশা করি আপনারা ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন। তারপরও যদি আপনাদের কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে নিচে কমেন্ট করে জানান। আমি অবশ্যই রিপ্লে দেওয়ার চেষ্টা করবো। আর অনুরোধ থাকবে আপনাদের যদি এই আর্টিকেলটা ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ।

Post a Comment

Previous Post Next Post